Header Ads

6Places you're not Allowed to Visit !! #Part 1 ! এই ৬ টি স্থানে কোন মানুষ যেতে পারবেনা





আপনি শক্তিশালি ক্ষমতাবান বা যতই ধনি ব্যাক্তি হনা কেন আপনী যাই চাননা কেন তাই করতে পারেন না কারন এই সমাজের একটি সীমা দ্ধতা আছে কিছু শীমা বদ্ধতা আমাদের অবাক করে আবার কিছু শীমা বদ্ধতা আমাদের যুক্তিবাদি মন মানতেই পারেন কিন্তু আজ অদ্ভত দশএর ক্ষ থেকে টি এমন স্থান দেখবেন যেখানে আপনার সর্ব শক্তি থাকলেও যেতে পারবেন না । তাতে আপানার যুক্তিবাদি মন মানুক আর নাই মানুক ।

নাম্বার -১ *


ভারতের আন্দামান নিকোবরের নিকটে অবস্থিত এই সেন্টিনাল আইল্যান্ডটি এই আইল্যান্ডটি ভারতে অবস্থিত সুন্দর আইল্যান্ড দের মধ্যে   এটি একটি এই আইল্যান্ড বাইরে থেকে দেখতে সুন্দর হলেও এই আইল্যান্ড টিতে প্রবেশ নিশিদ্ধ বলাটা ঠিক হবেনা এখানে প্রবেশ করতেদেবেনা সেখান কার আধিবাসী মানুষেরা সে আপনি বন্ধু হতে চান বা শক্র তারা আপনাকে নিজেদের শক্র হিশাবেই গন্য করবে। ইংরেজ থেকে শুরু করে স্বাধিন ভারতের সরকার অবধী সে আইল্যান্ডেই প্রবেশ করার প্রয়াস বিফলে গেছে ২০০২ সালে ভারত মহাসাগরের সুনামিতে ইন্ডিয়ান আর্মি তাদের হেল্প করতে যাই খাদ্য দিয়ে সাহায্য করে এবং উদ্ধার করতে চাই সেখানকার আদিবাসী দের যারা বেচেছিল বন্ধুতের এমন হাতকে তারা ছুড়েছিল তির, ধনুকের বান ইন্ডিয়ান আর্মি হেলিকাফটরের উদ্দেশ্য। এতে ইষ্পষ্ট তারা মৃত্যু বরন করতে রাজি তবুও মানুষের বন্ধুত্বের হাত ধরতে রাজি  নয় সরকারি ভাবে তাদেরকে আর খাটানো হয় না এই মানুষ গুলির প্রকৃতি আরও ভালো করে বুঝতে হলে আমি আপনাকে রিকমেন্ট করতে পারি সুনিল গঙ্গপধ্যায় এর রচিত কাকাবাবু সিরিজের সবুজ দ্বীপের রাজা গল্পটিতে অ্যামাজনে বইটি পেয়ে যবেন সর্বশেষে এই টফিক টি নিয়ে একটি কথা এইসব আদিবাসীদের একটি নিজেশ্য স্থানদিয়ে ভারতসরকার আমার মতে দেশ ডিশিশন গ্রহন করেছেন কারন বাকি সকল আগ্যামানি আদিবাসী সভ্য সমাজের সংর্স্পশে এসে আজ লুপ্তপ্রায় যেমনগের্ড্রজ,আন্দামানিজ,জারনিজম ইত্যাদি ইত্যাদি কমিকাল জাদি নর্থ সেন্টিনাল আইল্যান্ড সর্ম্পকে  একটি ভিডিও পেতে চান তাদের রিয়ার কিছু ভিডিও ফুটেজ সাথে ।


নাম্বার -২*
ইউনাটেট্র ষ্ট্রটডেট নায়ার দক্ষিন ভাগে অবস্থিত এরিয়া ৫১। ১৯৯৫ সাল থেকে ইউরেজ ইয়ার পোজ এই স্থান টিতে ইয়ার প্লিন টেষ্ট টিং এর কাজের জ্যন ব্যবহার শুরু করে বর্তমানে US সরকার দাবি করে এই স্থানটিতে মাত্র একটি ইয়ারপোটফি রয়েছে কিন্তু সত্যি কিতাই কারন এই স্থানটির সাথে যুক্ত ইতিহাস ঘটনা ,বা রুমার্স অন্য কথাবলে এই স্থানতিতে একদিকে যেমন ইউ  এস মেলেটারি দাবিকরে নতুন এবং হাইভিক বিমান তৈরি বা পরিক্ষার কাজে ব্যবহিত হয় তেমনি অন্য দিকে অনেক লোকেদের বক্তব এখানে দৃর ঘটনা গ্রস্থ এরোপ্লেন রাখা আছে এবং এরফো এবং এলিয়ানসীর ওপর চলে বিস্তর পরিক্ষা নিরিক্ষা যা সম্পুর্ণ বাকি পৃথিবীর আড়ালে s.k এসপেস ইনজিনিয়ার অয়ের বুস ম্যান যিনি এরিয়া প্রজেক্টটে অনেক সময় ধরে কাজ করেছেন এরিটিসিদের ছবি বাকি পৃথিবীর মানুষের উদেশ্যে প্রকাশ করেছেন এছাড়া অন্যান সোর্স থেকে প্রকাশ পেয়েছে অনেক তথ্য বা ভিডিও যেখানে এটা প্রমান প্রায় এরিয়া ৫১ শুধু মাত্র একটি এয়ার বেজ নয় এরিয়া ৫১ এর অনেক আরো তথ্য নিয়ে আমরা বিস্তারিত অন্য একটি ভিডওতে আলোচনা করবো বলে রাখি এই স্থানটি নিদিষ্ট কিছু মানুষের জন্য পৃথিবীর কোনো দেশের সাধারন অসাধারন কোনো ব্যাক্তি কোনো ভাবেই এই স্থাটিতে প্রবেশ করতে পারবে না হ্যালি প্রটেকট্রেড

নম্বর ৩*
ফিরে এলাম আর একটি আইল্যান্ড এর প্রসঙ্গ নিয়ে ব্রাজিল থেকে আমাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষের ফুটবলের দেশ বলে চেনি কিন্তু বার্জিলের মতো জনপ্রিয় বার্জিলের সাওপাওলো ব্রিজ যা পৃথিবী অন্যতম সুন্দর ব্রিজ এর মধ্যে একটি তিরতার ৩৩ কিলোমিটার দৃরে এমন একটি আইল্যান্ড অবস্থিত যেখানে কোনো মানুষের প্রবেশ নিষিদ্ধ সুন্দর এই আইল্যান্ডটিকে কোনো আদিবাসি মানুষ নয় রয়েছে ৪০০০ এর বেশি প্রজাতির সাপ এখানে বসবাস করে পৃথিবীর সবচেয়ে বিষেধর সাপ এখানে পৃথিবীর অন্যতম বিসধর সাপ কল্যোন ল্যংমেরও বসবাস করে এই সাপ টির ১গ্রাম বিষে ৫০ জন এর মৃত্যু সম্ভব ।এই সাপ ব্রাজিল সরকারের উদ্দশ্যে ১৯০৯ সালে এই আইল্যান্ডে একটি লাইট হাউস বানানো হয় যাতে সমুদ্র জাহাজ গুলি এই আইল্যান্ড থেকে দৃরে থাকে এই লাইট হাউস দেখে শনার কাজে রত একটি সম্পুর্ণ পরিবারের মৃত্যুর কারন হয় এই সাপেরায় এর পরে ব্রাজিল সরকার সম্পুর্ণ লাইট হাউসটিকে অটমেটিক করার ব্যবস্থা গ্রহন করে এবং সম্পুর্ণ আইল্যান্ড টিতে মানুষের প্রবেশ সারা জীবনের জন্য বন্ধ করে

 নম্বর-৪*
যাপানের ছবির মেতো সুন্দর পাহাড় মাউন্ট ফুজির নিচেই অবস্থিত ওকিগারা ফরএস্ট যাকে সুসাইট ফরএস্ট বা সি অফখ্রীজ নাম জানা যায় এই স্থানটি যাপানের সবচেয়ে জনপ্রিয় সুসাইট ফর এখানে হাজার এর বেশি সুসাইটের ঘটনা সামনে এসেছে ২০০৩ সালে এই স্থানটিতে একসাথে ১০৫ টি ডেথবডি উদ্ধার করা হয়েছিলে এই আত্যহত্যার কারনে জঙ্গলটিকে ভৃতুড়েও বলা হয় এছাড়া এখানে অনেক লুটপাটের ঘটনাও ঘটেছে বলেও জানা যায় কিন্তু আজ অবধ এসব লুটেরা অথাৎ ডাকাতদের কেউই দেখেনী এই জঙ্গলটির আরেকটি অবাক করা বৈশিষ্ট হলো এখানে কোনো রকম অধুনিক উপকরন যথা মোবাইল ,কম্পাস ঘড়ি কাজ করেনা আর বলার কোনো প্রয়োজন নেই কেন যাপান সরকার এই স্থানটিতে নর্ট আ্যলাও সাইন বোর্ড টাঙ্গীএছে

নম্বর- ৫*
রাসিয়ার রাজধানী মস্ক্রো শহরে অবস্থিত আন্ডার গ্রাউন সিস্ট্রেক মেট্রো সিস্টেমের নামই হলো মেট্রোটোর এই মেট্রো লাইন এর নিমার্ন করেছিলো জোসেফ স্টোলে এবং নাম রেখে ছিলেন থ্রী মেট্রোর্ডুম মস্ক্রো পাবলিক মেট্রোর থেকে বেশি লম্বা এবং বিস্থারিতে জেসেফ স্ট্রোলেনের এই মেট্রো নির্মানেক কার আপাত কালিনের মতো সময়ে এই মট্রোর সুবিধা গ্রহন করা ৫০থেকে ১৫০ ফুট গভিরে থাকা এই মট্রো রাশিয়ার প্রেমিড্রেস্ন অফিসে থেকে দেশের অন্যান গুরুত্ব পুর্ণ স্থান গুলিতে চোখপড়ে এমন কী এই মেট্রো বানানের অনভতম অদুদষ্ট ছিল পরোমানোবিক বোমার হাত থেকে প্রেসিডেন্টকে রক্ষা কর

নম্বর-৬*
আমরা সকলেই কোকাকোলা একবার হলেও পান করেছি আমি একটু সাহসি কতার সঙ্গে বলতে পারি আপনি হয়তো ভেবেছেন কোকাকোলা তৌরি হয় কী করে কারণ এই স্বাদটি আমাদের অকৃষ্ট করে ঠিক এই কারনে সাধারন থেকে অসাধারন ব্যাক্তির হাত থেকে কোকাকোলা তৌরি রেসিপি সুরক্ষিত রাখতে কোকাকোলা কোলডিংব্যান্ড কোকাকোলা ভোল্ট তৌরি করেছে যেটি আটল্যান্টতে অবস্থিত এবং যেটি হোল্টঅফ সির্কেট রেসিপি নাম পরিচিত এখানে কোকাকোলা তৌরি রেসিপি ১২৫ বছর ধরে সুরক্ষিত হল এখানে নিদিষ্ট - জন কোকাকোলা কম্পানির ব্যাক্তি ছাড়াই ,আর কোনে ব্যাক্তি প্রবেশ করতে পারেনা আপনি একটা মোটা অঙ্কের টাকা দিয়ে হোল্ডএর বাইরে দাড়িয়ে হাশি মুখে একটা সেলফি নিশ্চয় তুলতে পারেন কিন্তু ভেতরে নর্ট অ্যালাও অ্যালাউড ।

No comments

Powered by Blogger.